শিশু কিশোরদের অনুষ্ঠান ‘ছন্দে আনন্দে’

শিশু কিশোরদের নিয়ে দ্য গ্লোবাল টিভির নিয়মিত আয়োজন  ‘ছন্দে আনন্দে’ অনুষ্ঠান। গত ২৫ অক্টোবর অনুষ্ঠিত ১ম পর্বে  অংশগ্রহণ করে বাংলাদেশের ঢাকার কাব্যকলা আবৃত্তি সংগঠন। ( লাইভ ভিডিও লিঙ্ক নীচে )

কাব্যকলার যাত্রা শুরু ২০১৭ সালে। এখানে ছোট্ট ছোট্ট শিশুদের আবৃত্তির মিলনমেলা। ৪- ১৪ বছরের বাচ্চাদের নিয়ে কাজ করছে কাব্যকলা, প্রমিত বাংলা এবং সঠিক উচ্চারণকে প্রাধান্য দিয়ে কবিতা আবৃত্তি চর্চা করা হয় এখানে। তবে শিশুদের সাথে বড়রাও যুক্ত আছেন কিছু সংখ্যক। কাব্যকলা প্রতিবছর বহু অনুষ্ঠান করে থাকলেও প্রতিবছর কাব্যকলা বড় একটি উৎসবের আয়োজন করে থাকে যেখানে অন্যান্য আবৃত্তি সংগঠন ও শিল্পীদেরও আমন্ত্রণ জানানো হয় । প্রতিবছর কাব্যকলার এই উৎসবে মুনা চৌধুরীর বই মোড়ক উন্মোচন হয়ে আসছে ২০১৭ হতেই, সেখানে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রীর উপস্থিতি সহ বাংলাদেশের বরেণ্য লেখক এবং আবৃত্তি শিল্পীরাও পদধূলি দিয়ে ক্ষুদে আবৃত্তি শিল্পীদের মনে প্রাণের সঞ্চার ঘটায়। এতে আমরা অনুপ্রাণিত হই, শিশুরা আগামীতে আরও ভালো কাজ উপহার দেবার দায়িত্ব নিতে নিজেদের প্রস্তুত করে। কাব্যকলার মূল উদ্দেশ্য সুস্থ শিল্প চর্চা করা এবং বাচ্চাদের বাংলার শিল্পকলার সাথে পরিচিত করে তোলা যাতে তারা সারাক্ষণ ইলেকট্রনিক ডিভাইস এর ওপর ঝুঁকে না থাকে।

অনুষ্ঠানে ৭জন শিশু কিশোর ও সংগঠনের কর্ণধারসহ মোট ৮ জন অংশ নিয়ে ১৬ টা কবিতা আবৃত্তি করেছেন।

১) আজালিয়া হোসেনঃ  কবি শামসুর রাহমান এর কবিতা ” অন্ধকার থেকে আলোয়”, কবি মারুফুল ইসলামের কবিতা ”হযবরল”।
2) গাজী ইউশাঃ “কখনো আমার মা-কে” – কবি শামসুর রাহমান,  “তারা ভরা রাতে কবিতা”- কবি মুনা চৌধুরী।
৩) তাহমিদঃ “লিচু চোর “- কবি কাজী নজরুল ইসলাম, “পণ্ডশ্রম”- কবি শামসুর রাহমান।
৪) সিয়ামঃ “আবোলতাবোল” – কবি সুকুমার রায়, ” অঙ্গীকার” – কবি শামসুর রাহমান।
৫) ওয়াফিকাঃ “জল টুপ টুপ” – কবি শামসুর রাহমান, “টাকা “- কবি মারুফুল ইসলাম
৬) ওয়াদিঃ “মেঘনা পাড়ের ছেলে” – কবি আহসান হাবীব, “সাব্বাশ” – কবি মারুফুল ইসলাম।
৭) রঙ্গনঃ “একটি কবিতার জন্য” – কবি শামসুর রহমান , “সৎ পাত্র” – কবি সুকুমার রায়
৮) মুনা চৌধুরী – “শহীদ কাদরী” – কবি নূরুল হুদা, “কারও কারও জন্য এমন লাগে কেন” – কবি তসলিমা নাসরিন।

লাইভ ভিডিও: শিশু কিশোরদের অনুষ্ঠান ‘ছন্দে আনন্দে’ 

https://www.youtube.com/watch?v=EUWD7C4IKfk

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *