শনিবার, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২০ ইং, ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
আজ শনিবার | ৫ই ডিসেম্বর, ২০২০ ইং

নৌযান শ্রমিকদের লাগারতার ধর্মঘট চলছে যে কারনে ( ভিডিও )

বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০ | ১২:২৯ এএম | 81 বার

নৌযান শ্রমিকদের লাগারতার ধর্মঘট চলছে যে কারনে ( ভিডিও )

নৌযান শ্রমিক কর্মচারীদের খাদ্যভাতা নির্ধারন, নিয়োগপত্র প্রদান, সার্ভিসবুক, কথায় কথায় চাকুরীচ্যুত বন্ধ, নদী পথে পুলিশ, চাদাঁবাজদের চাদাবাজি বন্ধ, ডাকাতি রোধসহ ১৫ দফা দাবীতে পন্যবাহি জাহাজে কর্মরত শ্রমিকদের কর্মবিরতি ও লাগাতার ধর্মঘট চলছে। সোমবার সন্ধ্যা ছয়টা থেকে লাগাতার ধর্মঘট চলার কারণে নদী পথে সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে সরকারি বেসরকারি, শিল্পখারখানায় পন্য লোডআনলোড বন্ধ হয়ে গেছে। নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দর, মংলা, চট্রগ্রাম, খুলনা, যশোরসহ সব নদী বন্দরে একযোগে বাংলাদেশ জাহাজী শ্রমিক ফেডারেশনের অর্ন্তভুক্ত বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নসহ নৌ শ্রমিকদের বিভিন্ন সংগঠনের এ ধর্মঘট পালন করছে।

শ্রমিকদের দাবি ২০১৯ সালের এই দিনে খাদ্যভাতা নির্ধারনসহ বেশ কয়েটি দফার বাস্তবায়নের দাবিতে নৌযান শ্রমিকরা আন্দোলন করে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছিলো। সে সময় সরকার, বিআইডবিøউটিএ, এবং মালিক পক্ষ শ্রমিকদের সাথে বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নেয় ২০২০ সালের মার্চ মাস থেকে নৌযান শ্রমিকদের খাদ্যভাতা প্রদান কা হবে। কিন্তু জাহাজ মালিকরা করোনাসহ নানা অযুহাত তুলে খাদ্যভাতা নির্ধারন বা প্রদান করেনি। যে কারণে শ্রমিকরা বাধ্য হয়ে লাগাতার ধর্মঘটের আন্দোলনে যেতে হয়েছে। তাদের দাবি জাহাজে একজন শ্রমিক ২৪ ঘন্টা কাজ করে। কিন্তু যে বেতন দেয়া হয় তা দিয়ে একজন শ্রমিকের সংসার চলে না। তার পরে সেই বেতন মালিকপক্ষ সঠিক সময়ে পরিশোধ করেনা।

ভিডিওঃ নৌযান শ্রমিকদের লাগারতার ধর্মঘটের সংবাদ 

https://fb.watch/1fUADwypzW

সরকার ও মালিক পক্ষ বার বার আশ্বাস দিয়েও শ্রমিকদের খাদ্যভাতা প্রদান করেনি। নৌ আইন মেনে বিআইডবিøউটিসি সিরিয়াল অনুযায়ী সকল চট্টগ্রাম সমুদ্রগামী সকল লাইটারেজ জাহাজ চলাচল, মালিক কর্তৃক নিয়োগপত্র, সার্ভিসবুক দিতে হবে, শ্রমিকের চাকুরীচ্যুত বন্ধ, দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় জাহাজ দুর্ঘটনায় পড়লে তার দায় মাস্টারদেরকে দেওয়া যাবেনা। নৌযানে কাগজপত্র দেখার নামে নৌ প্রশাসনের সকল হয়রানী জুলুম, নির্যাতন ও মিথ্যা মামলা বন্ধ করতে হবে। ইনল্যান্ড মাস্টার ড্রাইভারশীপ পরীক্ষায় ও ডিপিডিসি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের সকল প্রকার অনিয়ম, দুর্নীতি বন্ধ করা, নৌ যান শ্রমিকদের জন্য বিশ্রামাগার নির্মাণ, দুর্ঘটনায় নৌযান শ্রমিক কর্মচারীদের ১২ লাখ টাকা মৃত্যুকালীন ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। কিন্তু সরকার ও মালিক পক্ষ এসব দাবি মেনে নেয়ার হবে বলে বার বার আশ্বাস দিলেও বাস্তবায়ন করছে না। তাই শ্রমিক কর্মচারীরা বাধ্য হয় লাগাতার কর্মসুচীতে করছে বলে দাবি এই শ্রমিক নেতার।

রফিকুল ইসলাম রফিক
নারায়ণগঞ্জ


সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  
ফেইসবুক পাতা